1. admin@banglabahon.com : Md. Sohel Reza :
শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০৭:৫৮ পূর্বাহ্ন
আপনিও লিখুন:
‘বাংলা বাহন’ নিউজপোর্টালে আপনাদের মতামত, পরামর্শ, সমসাময়িক কোন বিষয়ে লেখা, বিশ্লেষণ, তথ্য, ছবি ও ভিডিও পাঠাতে পারেন banglabahonbd@gmail.com ঠিকানায়।

যুক্তরাষ্ট্রে আরেকটি করোনা ভ্যাকসিনের ট্রায়াল

বিদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশ: বুধবার, ৬ মে, ২০২০
ইউনিভার্সিটি অব মেরিল্যান্ড স্কুল অব মেডিসিনে ভ্যাকসিন নিচ্ছেন একজন অংশগ্রহণকারী। ছবি: নিউইয়র্ক টাইমস

নিউইয়র্ক-ভিত্তিক ওষুধ কোম্পানি ফাইজার নভেল করোনাভাইরাসের একটি ভ্যাকসিনের হিউম্যান ট্রায়াল শুরু করেছে।

বিশ্বখ্যাত মার্কিন সাময়িকী ফোর্বস জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে ৩৬০ জন সেচ্ছাসেবীকে ভ্যাকসিন দেয়া হবে। সোমবার প্রথম ব্যক্তি ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছেন।

ফাইজার এই ভ্যাকসিনটি যৌথভাবে জার্মান বায়োটেক কোম্পানি ‘বায়োএনটেক’র সঙ্গে তৈরি করেছে। যুক্তরাষ্ট্রে প্রাথমিক ট্রায়ালের পর জার্মানিতে ২০০ জনকে দেয়া হবে।

ভ্যাকসিনটি ‘এমআরএনএ’-ভিত্তিক চিকিৎসা ব্যবস্থার অন্তর্গত বলে জানা গেছে। এটি নিলে মানুষের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা শক্তিশালী থাকবে বলে আশা করছে ফাইজার।

জার্মানির বায়োএনটেক কোম্পানি এর আগে ক্যানসারের এমআরএনএ-ভিত্তিক চিকিৎসা করে সাফল্য পেয়েছিল।

সাধারণভাবে এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শুরু করতেই বছরখানেক লাগার কথা ছিল। কিন্তু নভেল করোনাভাইরাসে পৃথিবীর অবস্থা দিনকে দিন খারাপ হওয়ায় ফাইজার দ্রুত ট্রায়াল শুরু করে।

‘মহামারী দ্রুত ভয়ংকর আকারে ছড়িয়ে পড়ছে। গবেষণার জন্য পর্যাপ্ত সময় নেই,’ মন্তব্য করে ফাইজারের ভ্যাকসিন বিভাগের প্রধান ক্যাথরিন জ্যানসেন বলেন, ‘অবস্থা গুরুতর হওয়ায় আমরা দ্রুততম সময়ে কাজ শুরু করতে চেয়েছি।’

গোটা পৃথিবীতে প্রায় শতাধিক কোম্পানি কভিড-১৯ রোগের ভ্যাকসিন আবিষ্কারের চেষ্টা করছে। গত মার্চে ব্রিটেনের অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি তাদের চাডক্স১ এনকভ-১৯ ভ্যাকসিনের হিউম্যান ট্রায়াল দিয়েছে। ট্রায়াল দিয়েছে চীনও। আমেরিকায় এ নিয়ে একাধিক কোম্পানি ট্রায়াল দিল। মার্কিন প্রশাসনের সহযোগিতায় প্রথম ট্রায়াল শুরু করে মার্ডানা কোম্পানি।

ফাইজার জানিয়েছে, সোমবার থেকে শুরু হওয়া ট্রায়ালে তারা ভ্যাকসিনটির বেশ কয়েকটি ভার্সন পরীক্ষা করে দেখবে। যেটি দ্রুত এবং নিরাপদভাবে কাজ করবে, সেটি নির্বাচন করা হবে।

হিউম্যান ট্রায়াল শুরুর সঙ্গে সঙ্গে উৎপাদনে যাওয়ার কাজও শুরু করেছে ফাইজার। কোম্পানিটি বলছে ভাকসিন সরবরাহ বড় চ্যালেঞ্জ।

‘ভ্যাকসিন কাজ করবে কি না, সে পর্যন্ত অপেক্ষা করে উৎপাদনে যাওয়ার কথা ভাবলে অনেক দেরি হয়ে যাবে,’ বিবৃতিতে ফাইজার জানিয়েছে, ‘তাই আমরা এখনই কাজ শুরু করেছি।’

আমেরিকার আরেকটি কোম্পানি ইরোভিও ডিএনএ-ভিত্তিক চিকিৎসা ব্যবস্থার ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শুরু করছে। একই সঙ্গে জনসন অ্যান্ড জনসন এবং জিএসকে অ্যান্ড সানোফিও ভ্যাকসিন তৈরির ঘোষণা দিয়েছে।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ...
© বাংলা বাহন সকল অধিকার সংরক্ষিত ২০২০-২০২১।
ডিজাইন ও আইটি সাপোর্ট: বাংলা বাহন