1. admin@banglabahon.com : Md Sohel Reza :
মানিকগঞ্জে জিসকার ইনজেকশনের প্যাকেটে মিললো মেয়াদোত্তীর্ণ সরকারি ওষুধ
সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ০২:২৪ পূর্বাহ্ন

মানিকগঞ্জে জিসকার ইনজেকশনের প্যাকেটে মিললো মেয়াদোত্তীর্ণ সরকারি ওষুধ

বাংলা বাহন ডেস্ক
  • প্রকাশ: বুধবার, ৫ এপ্রিল, ২০২৩
মানিকগঞ্জে জিসকার ইনজেকশনের প্যাকেটে মিললো মেয়াদোত্তীর্ণ সরকারি ওষুধ
জিসকা ফার্মাসিক্যালসের প্যালোরন ইনজেকশনের প্যাকেটে সরকারি মেয়াদোত্তীর্ণ হাইড্রোকোর্টিসোন ইনজেকশন।

মানিকগঞ্জে এক ফার্মেসিতে জিসকা ফার্মাসিউটিক্যালসের ইনজেকশনের প্যাকেটে পাওয়া গেল মেয়াদোত্তীর্ণ সরকারি ইনজেকশন। আজ দুপুরে উথলীস্থ শিবালয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে লতা ফার্মেসি থেকে অন্তঃসত্ত্বা জাকিয়া খাতুন এই ইনজেকশন কিনে শরীরে পুশ করার সময় তা সনাক্ত করা হয়।

এ ঘটনায় ওই ইনজেকশন জব্দ ও ফার্মেসিতে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। গঠন করা হবে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি।

জাকিয়া খাতুন জানান, গাইনি বিভাগের এক চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র নিয়ে বেলা ১১টার দিকে তিনি লতা ফার্মেসিতে যান। ব্যবস্থাপত্র দেখিয়ে প্যালোক্সি আইভি ইনজেকশন দিতে বলেন। ফার্মেসি মালিক পংকজ কুমার সাহা তাকে দেন জিসকা ফার্মাসিউটিক্যালসের প্যালোরন ইনজেকশন। এই ইনজেকশন নিয়ে গিয়ে পূর্ব পরিচিত পাশের একতা ডায়াগনিষ্টিক সেন্টারের মেডিকেল টেকনোলজিস্ট মো. রেজাউল করিমকে পুশ করতে বলেন তিনি। তার শরীরে ইনজেকশন পুশ করার জন্য প্যাকেট খুলে রেজাউল দেখেন সরকারি হাসপাতালের হাইড্রোকোর্টিসোন ইনজেকশন। তাও আবার মেয়াদোত্তীর্ণ।

বিষয়টি রোগীর স্বজনরা জানার পর সেখানে জড়ো হলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকতাকে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

মেডিকেল টেকনোলজিস্ট রেজাউল করিম জানান, তিনি প্যাকেট খুলে ইনজেকশন দিতে গিয়ে দেখেন সরকারি হাসপাতালের মেয়াদোত্তীর্ণ হাইড্রোকোর্টিসোন ইনজেকশন। এ কারণে ইনজেকশন না দিয়ে বিষয়টি ওই রোগীকে জানিয়েছেন। না দেখে এই ইনজেকশন দেয়া হলে ওই অন্তঃসত্ত্বা রোগীর মারাত্নক ক্ষতি হয়ে যেতো।

ফার্মেসি মালিক পংকজ কুমার সাহা বলেন,‘ জিসকা ফার্মাসিউটিক্যালসের প্যালোরন ইনজেকশনের প্যাকেটের ভেতর সরকারি হাসপাতালের মেয়াদোত্তীর্ণ হাইড্রোকোর্টিসোন ইনজেকশন থাকার কথা নয়। পূর্ব পরিকল্পিতভাবে কেউ আমার সুনাম নষ্ট ও হয়রানির করার উদ্দেশ্যে এ ষড়যন্ত্র করেছে।’

এ ব্যাপারে শিবালয় উপজেলা স্বাস্থ্য পরিদর্শক হামিদা ইয়াসমিন বলেন,‘ রোগীর কাছে ঘটনা জেনে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার নির্দেশে মেয়াদোত্তীর্ণ হাইড্রোকোর্টিসোন ইনজেকশন জব্দ করা হয়েছে। ওই ফার্মেসি থেকেও জিসকা ফার্মাসিউটিক্যালসের সকল প্যালোরন ইনজেকশন সংগ্রহ করা হয়েছে।

এ ঘটনায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করার নির্দেশ দিয়েছেন। ফার্মেসিতে তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করতে চাইলে...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ...
© বাংলা বাহন সকল অধিকার সংরক্ষিত ২০১৯-২০২৪।
ডিজাইন ও আইটি সাপোর্ট: বাংলা বাহন
error: Content is protected !!