1. admin@banglabahon.com : Md. Sohel Reza :
প্রয়োজনে হুইল চেয়ারে বসে প্রচারণার ঘোষণা মমতার | বাংলা বাহন
বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ০৭:৫৮ পূর্বাহ্ন
আপনিও লিখুন:
‘বাংলা বাহন’ নিউজপোর্টালে আপনাদের মতামত, পরামর্শ, সমসাময়িক কোন বিষয়ে লেখা, বিশ্লেষণ, তথ্য, ছবি ও ভিডিও পাঠাতে পারেন info@banglabahon.com ঠিকানায়।

প্রয়োজনে হুইল চেয়ারে বসে প্রচারণার ঘোষণা মমতার

ওপার বাংলা ডেস্ক
  • প্রকাশ: শুক্রবার, ১২ মার্চ, ২০২১
ছবি: পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।-আনন্দবাজার

নন্দীগ্রামে নির্বাচনী প্রচারণায় গিয়ে আহত ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রয়োজনে হুইল চেয়ারে বসে প্রচারণা চালানোর ঘোষণা দিয়েছেন।

এসএসকেএম হাসপাতালের বেড থেকে এক ভিডিও বার্তায় এমন প্রত্যয়ের কথা জানিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী।

হাসপাতাল সূত্রের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার জানিয়েছে, মমতার শারীরিক অবস্থা এখন স্থিতিশীল। তবে তার শারীরিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন চিকিৎসকরা।

এনিয়ে শুক্রবার বৈঠক করবে মেডিকেল বোর্ড। ফলে মুখ্যমন্ত্রী কবে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাবেন, তা নির্ভর করছে ওই বৈঠকে নেওয়া সিদ্ধান্তের ওপরেই।

ভিডিও বার্তায় মমতা বললেন, ‘সকলে শান্ত থাকুন, মানুষের সমস্যা হয় এমন কিছু করবেন না। কাল খুব জোর লেগেছিল। আমি আশা করছি, কয়েক দিনের মধ্যেই আবার মাঠে নামতে পারব, প্রচারে বের হব। তবে হুইল চেয়ারে ঘুরতে হতে পারে। সেটা সকলে সহযোগিতা করলে সম্ভব হয়ে যাবে।’

হাসপাতালের বরাত দিয়ে এই সময় জানিয়েছে, মমতার বাঁ-পায়ে ব্যথা রয়েছে। রেডিওলজিক্যাল ইনভেস্টিগেশন করা হচ্ছে। তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। সোডিয়ামের মাত্রা কম।

বুধবার নন্দীগ্রামের রেয়াপাড়ায় একটি মন্দিরে পূজা দিয়ে বের হওয়ার সময় চার-পাঁচজন মমতাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় বলে অভিযোগ। এ ঘটনার পর নির্বাচনী প্রচার কর্মসূচি মাঝপথে বন্ধ করে মমতাকে কলকাতায় ফিরিয়ে নেওয়া হয়।

কলকাতায় ফেরার পথে রাস্তায় সাংবাদিকরা মমতার গাড়ি থামালে তিনি বলেন, ‘ভিড়ের মধ্যে ৪-৫ জন বাইরে থেকে ঢুকে পড়েছিল। ধাক্কা মেরে ফেলে দেয় আমাকে। ইচ্ছাকৃতভাবে ধাক্কা মারা হয়। এর পেছনে ষড়যন্ত্র ছিল।’

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ...
© বাংলা বাহন সকল অধিকার সংরক্ষিত ২০১৯-২০২১।
ডিজাইন ও আইটি সাপোর্ট: বাংলা বাহন